সরকার ও রাজনীতি বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাই জাতিকে আলোর পথ দেখাতে পারেন: এইউবি ভিসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
ঢাকা: এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা ও ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আবুল হাসান এম. সাদেক বলেছেন, সরকার ও রাজনীতি বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাই সব ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় জাতিকে নতুন আশার আলোর পথ দেখাতে পারেন, সবাইকে ইতিবাচক শিক্ষা দিতে পারেন।

তিনি আরো বলেন, সরকার ও রাজনীতি বিভাগের গৌরবান্বিত অতীত রয়েছে। সেই গৌরবকে ধরে রাখতে আগামী দিনেও এ বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে হবে।

শুক্রবার এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর সরকার ও রাজনীতি বিভাগের গ্রেজুয়েশন সিরিমনি সামার-২০১৮ এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অধ্যাপক সাদেক বলেন, ‘আজকে যারা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রী নিয়ে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করতে যাচ্ছেন তাদেরকে নিয়েই আমাদের নতুন স্বপ্ন, নতুন সম্ভাবনা। আগামী দিনে তারাই আমাদেরকে একটি সুন্দর সমাজ উপহার দিতে পারেন। তারাই পারেন বিশ্বকে নতুনভাবে সাজাতে।’

এইউবি কারিকুলামের বিষয়টি উল্লেখ করে ভিসি অধ্যাপক সাদেক বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয়ে শুধু আধুনিক শিক্ষা দেয়া হয় না, শিক্ষার্থীদেরকে নৈতিক শিক্ষাও দেয়া হয়। ফলে এর কারিকুলাম সোমালিয়াসহ বিশ্বের অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বারা প্রশংসিত হয়েছে। তাই এখানকার শিক্ষার্থীরা যদি সত্যিকার অর্থে নৈতিকতা সম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে উঠে সমাজে অবস্থান করে নিতে পারে তবেই মৃত্যুর পরও আমরা শান্তি পাবো।

গ্রেজুয়েটদের উদ্দেশ্যে অধ্যাপক সাদেক বলেন, অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জনকারীদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক এখানেই শেষ নয়, শিক্ষণ-শিখন প্রক্রিয়ায় তাদের সঙ্গে আমাদের যে সম্পর্ক গড়ে উঠেছে তা মূলতঃ আজীবনের জন্য। তাদের জন্য এশিয়ান ইউনিভার্সিটির সব দরজা খোলা থাকবে সর্বদা। তারা সারাজীবনের জন্য আমাদের মেহমান হিসেবে আসা-যাওয়া করবেন। সর্বদা তারা আমাদের পাশে থাকবেন বলে দৃঢ় বিশ্বাস করি।

তিনি আরো বলেন, আজকে যে সব শিক্ষার্থী ডিগ্রী নিয়ে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করতে যাচ্ছেন তারা সর্বদা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বেসেডর হিসেবে ভূমিকা রাখবেন। তারাই আমাদের জন্য সুনাম-সুখ্যাতি বয়ে আসবেন। কেননা, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা গৌরব উজ্জ্বল অতীত রয়েছে। অতীতে যারা পাস করে বের হয়েছেন তারা দেশের বিভিন্ন সেক্টরে শীর্ষ স্থানীয় পদে অধিষ্ঠিত হয়ে দেশ ও জাতির উন্নয়নে ভূমিকা রাখছেন। আজকের গ্রেজুয়েটরাও কর্মক্ষেত্রে দক্ষতার পরিচয় দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সুনাম বয়ে আনবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. শেখ আসিফ এস. মিজান সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে বিভাগ পরিচালনায় সবার আন্তরিক সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সহাকারী অধ্যাপক ড. এম. আনিছুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও ছাত্রউপদেষ্টা মো. জাকির হোসেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এম. শামসুজ্জামান, সহকারী অধ্যাপক ড. শরীফ আহমেদ চৌধুরী, ড. আলতাফ হোসেন, ইসমত আরা খুশি, মনিজা ইসলাম, রওনক জাহান ও শিহাব উদ্দিন।

গ্রেজুয়েটরা তাদের বক্তব্যে এশিয়ান ইউনিভার্সিটির শিক্ষা ও গবেষণার সুষ্ঠু পরিবেশ এবং শিক্ষকদের আন্তরিক সহযোগিতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাদের শিক্ষাজীবনের নানা আবেগ-অনুভূতি তুলে ধরেন। প্রধান অতিথিও গ্রেজুয়েটদের ভবিষ্যৎ করণীয় সম্পর্কে দিকনির্দেশনা দেন।

পরে গ্রেজুয়েটদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন প্রধান অতিথি এইউবির ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আবুল হাসান এম. সাদেক।

সবশেষে গ্রেজুয়েটদের অংশ গ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সিরিমনির আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Please follow and like us:
0